পবিত্রতা (তাহারাত)

ড. মোহাম্মদ সামিউল হক


২- ওয়াজিব মাসেহ্‌ করার পরিমান: লম্বায় আঙ্গুলের মাথা থেকে পায়ের পাতার উচু অংশ পর্যন্ত। চওড়ায় যে কোন পরিমান হলেই যথেষ্ট হবে, যদিও তা এক আঙ্গুল পরিমান হয়ে থাকে।

৩- এহতিয়াতে মুসতাহাব: পায়ের পাতার সম্পূর্ণ অংশ।

৪- ডান পাকে অবশ্যই বাম পায়ের আগে মাসেহ্‌ করতে হবে। কিন্তু প্রয়োজন নেই যে, ডান পাকে ডান হাত ও বাম পাকে বাম হাত দিয়েই মাসেহ্‌ করতে হবে (আল্‌ উরওয়াতুল উসকা, খণ্ড-১, ফাসলূ ফি আফআলিল ওযু, পৃঃ-২১০)

মাথা ও পা মাসেহ্‌ করার মাসআলা

১- মাসেহ্‌ করার সময় অবশ্যই হাতকে মাথা ও পায়ের উপর টানতে হবেআর যদি হাতকে স্থীর রাখে এবং মাথা বা পাকে টেনে আনে তবে সেক্ষেত্রে ওযু বাতিল হয়ে যাবে। কিন্তু যদি হাত টেনে আনার সময় মাথা বা পা সামান্য একটু নাড়ে যায় তবে তাতে কোন অসুবিধা নেই (তৌযিহুল মাসায়েল, মাসআলা নং-২৫৫)

২- যদি মাসেহ্‌ করার জন্য হাত ভিজা না থাকে তবে বাইরের পানি দিয়ে হাত ভিজিয়ে নিতে পারবে না, বরং ওযুর অন্য অংশ থেকে হাত ভিজিয়ে নিতে হবে এবং তা দিয়েই মাসেহ্‌ করতে হবে (তৌযিহুল মাসায়েল, মাসআলা নং-২৫৭)

৩- হাত এমন পরিমান ভিজা থাকতে হবে যে, তা দিয়ে মাসেহ্‌ করলে তা মাথা এবং পাকেও ভিজাতে পারে (আল্‌ উরওয়াতুল উসকা, খণ্ড-১, ফাসলূ ফি আফআলিল ওযু, পৃঃ-২১২, মাসআলা নং-২৬)

৪- যদি হাত এমন পরিমান ভিজা থাকে যে, তা দিয়ে শুধুমাত্র মাথা মাসেহ্‌ করা যাবে তবে তা দিয়ে তাই করতে হবে এবং পা মাসেহ্‌ করার জন্য ওযুর অন্য অংশ থেকে পুনরায় হাত ভিজিতে নিতে হবে (তৌযিহুল মাসায়েল, মাসআলা নং-২৫)

৫- মাসেহ্‌র স্থান (মাথা ও পায়ের পাতা) অবশ্যই শুকনো থাকতে হবে। সুতরাং যদি মাসেহ্‌র স্থান ভিজে থাকে তবে অবশ্যই তা শুখিয়ে নিতে হবে। তবে যদি মাসেহ্‌র স্থান এমন পরিমান ভিজা না থাকে যে, তার উপর মাসেহ্‌ করলে তা বোঝা যাবে তবে তাতে কোন অসুবিধা নেই (তৌযিহুল মাসায়েল, মাসআলা নং- ২৬)

৬- মাসেহ্‌ করার সময় হাত ও মাথা বা পায়ের মধ্যে বোরকা বা টুপি, মোজা বা জুতার মত কিছুর মাধ্যমে দুরত্ব সৃষ্টি না হয় তা যদি অনেক পাতলাও হয় এবং পানি চামড়ায় পৌছাতেও পারে [তবে উপায়হীন অবস্থা ব্যতীত] (তৌযিহুল মাসায়েল, মাসআলা, নং-২৭)



back 1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 next