তাফসীর বিষয়ক অনুষ্ঠান-১

রেডিও তেহরান

দ্বিতীয়ত: মৃত্যুভয়ে মুনাফিকরা সব সময় শঙ্কিতএই ভয় ও আশঙ্কার কারণে তাদের আত্মায় শান্তি নেই

তৃতীয়ত: আল্লাহপাক মুনাফিকদেরকে ঘিরে রেখেছেন এবং তাদের ষড়যন্ত্র ফাঁস করে দেন

চতুর্থত: নিফাক বা কপটতার ফলে শেষ পর্যন্ত কুফুরী বা অবিশ্বাসের জন্ম হয়

পঞ্চমত: আকাশ থেকে বর্ষিত বৃষ্টি থেকে মুনাফিকদের ভাগ্যে কেবল বজ্রপাতই জোটেকোরআন মানবজাতির জন্য আল্লাহর রহমতকিন্তু মুনাফিকের জন্য এই কোরআন হলো বিপদ ঘন্টা এবং অপমানের উ#

 

১১তম পর্ব

কোরআনের তাফসীর বিষয়ক অনুষ্ঠান কোরআনের আলোর ১১তম পর্বে আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছিআজ সূরা বাকারার ২০, ২১, ও ২২ নম্বর আয়াত নিয়ে আলোচনা করা যাক২০ নম্বর আয়াতে বলা হয়েছে-"বিদ্যু চমক তাদের দৃষ্টি শক্তি প্রায় কেড়ে নেয়আসমানের বিদ্যু যখন অন্ধকার প্রান্তরে তাদের জন্য আলো নিয়ে আসে, তখন তারা কয়েক কদম অগ্রসর হয়কিন্তু যখন অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়, তখন তারা থমকে দাঁড়ায়আল্লাহ চাইলে তাদের শ্রবণ ও দৃষ্টিশক্তি কেড়ে নিতেননিশ্চয়ইই আল্লাহ সর্ব বিষয়ে সর্বশক্তিমানআকাশের বিদ্যু চমক আর বজ্রপাতের শব্দ বৃষ্টির আলামতএ হলো পৃথিবীবাসীদের জন্য নব প্রাণ, সবুজ ও সজীবতার আগমনী বার্তাকিন্তু এই আগমনী বার্তা সবার জন্য সুসংবাদ নয়বরং তাদের জন্য শুভবার্তা যারা আল্লাহর এই রহমত থেকে উপকৃত হতে প্রস্তুততাহলে ঐ উদ্ভ্রান্ত যাত্রীর কি অবস্থা হবে? উদ্ভ্রান্ত যাত্রী বা মুনাফিক অন্ধকার প্রান্তরে যে আগুন জ্বালিয়েছে তার দুর্বল আলো এবং আকাশের বিদ্যু চমকানীর চোখ ধাঁধাঁনো আলোর কোনটাই তাকে জীবন চলার পথে সঠিক রাস্তা দেখাতে পারবে নাকারণ আগুনের আলো হলো অস্থায়ী, আর বিদ্যু চমকের ফলে যে আলো সৃষ্টি হয় তা বৃষ্টির বার্তা বয়ে আনে এবং এতে মুনাফিকদের জন্য দু:খ ছাড়া আর কিছু নেইআল্লাহর অহী হলো আসমানের চোখ ধাঁধাঁনো বিদ্যু ঝলকের মতএটি দেখার সাধ্য ও ক্ষমতা মুনাফিকদের নেইতারা পয়গম্বরদের কাছ থেকে আগত আল্লার ওহী থেকে উপকৃত হওয়ার চেষ্টা করে নাযদিও মুনাফিকরা বাহ্যিকভাবে ঈমানদার হওয়ার দাবী করে এবং এই নূর থেকে উপকৃত হতে চায়কিন্তু বিদ্যু চমক তাদের দৃষ্টি শক্তি কেড়ে নেয়, তাদের জন্য এগুবার পথ বন্ধ করে দেয়মুনাফিকদেরকে কোরআন এমনভাবে অপদস্থ করে যে তারা মুনাফিকদের সাথে পথ চলা অব্যাহত রাখতে পারে নাতাদের সামনের দিকে যাওয়ার যেমন পথ থাকেনা তেমনি পিছু হটারও কোন উপায় থাকেনাতারা পথ হারিয়ে উদ্ভ্রান্তের মত উদ্বেগ উত্তেজনায় পথ হাতড়াতে থাকেএসব হলো আল্লাহ এবং মুমিনদের সাথে কপটতার দুনিয়াবী ফলআল্লাহ যদি তাদেরকে শাস্তি দিতে চান তাহলে তারা শুধু চলার শক্তিই হারাবে না একই সাথে দৃষ্টি ও শ্রবণ শক্তিও হারিয়ে বসবে

সূরা বাকারার ২০ নম্বর আয়াতের কয়েকটি শিক্ষণীয় বিষয় হলো-
প্রথমত: আল্লাহর নূর দেখার শক্তি মুনাফিকদের নেইআল্লাহর বাণী আকাশের বিদ্যু চমকের মত তাদের দৃষ্টি শক্তি হরণ করে নেয়

দ্বিতীয়ত: মুনাফিকদের নিজস্ব কোন আলো নেই তাই তারা মুমিনদের আলোয় পথ চলার চেষ্টা করে
তৃতীয়ত: মুনাফিকরা অনেক সময় কয়েক কদম অগ্রসর হলেও মূলত: অগ্রসর হতে পারে না এবং অবশেষে থমকে দাঁড়ায়

চতুর্থত: মুনাফিকরা তাদের অপকর্মের কারণে যে কোন সময় আল্লাহর গজবের শিকার হতে পরে
পঞ্চমত: মুনাফিকরা আল্লাহকে ধোকা দিতে পারবে না এবং আল্লাহর শাস্তি থেকেও পালাতে পারবেনাকারণ আল্লহপাক সর্বশক্তিমান এবং কোন কাজই তার অসাধ্য নয়



back 1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 next